বাংলাদেশের প্রথম ওয়েটার রোবট বানালো রুয়েটের ছাত্ররা

0
1281

ওয়েটার রোবট “মিনিওন”। যেকোন রেস্টুরেন্টে খাবার সার্ভ করতে পারবে এমন অটোনোমাস বাংলাভাষী রোবট এর কাজ বাংলাদেশে এটাই প্রথম। সম্পূর্ণ নিজেদের হাতে তৈরী এটি কেবল একটি প্রজেক্টেই সীমাবদ্ধ নয়! এটি এখন বাণিজ্যিক ভাবে বাজারেও উন্মুক্ত করা যাবে এমনটাই বলল এ রোবট তৈরির কারিগররা।

সম্পূর্ণ রোবটি তৈরির পেছনে ছিলো রুয়েটের টিম ফটোস্ফিয়ার। মূলত ১৩ সিরিজের ম্যাকানিকেল ডিপার্টমেন্ট এর সিয়াম মেশকাতের হাত ধরে এর সূচনা হলেও এ প্রজেক্টকে প্রোডাক্ট হিসেবে রূপ দেওয়ার পিছনে নিরলস কাজ করে পুরো টিম ফটোস্ফিয়ার।

সিয়াম মেশকাত বলেন, ‘একটি রেস্টুরেন্টে অটোমেটিক খাবার সার্ভ করতে পারবে এই রোবটটি। চলার সময় গান গাইতে গাইতে চলতে পারে এবং সামনে কেউ দাড়াঁলে বিনীত ভাবে সরে যেতে অনুরোধ করে। রোবটটি কথা বলে বাংলা ভাষায়। মূলত সব বয়সের মানুষকে নির্মল আনন্দ দেয়ার কথা মাথায় রেখে তৈরী করা হয়েছে এটি।

আশা করি সকলের ভালো লাগবে। রুয়েট থেকে এই প্রথম রোবটিক্সে কোন প্রোডাক্ট লেভেলের কাজ করতে পেরে নিজেকে বেশ ভাগ্যবান মনে হচ্ছে। আরো ভাগ্যবান মনে হচ্ছে ফটোস্ফিয়ার টিমের সাথে আইডিয়াটা দাঁড় করাতে পেরে।’

তাদের আরেকজন টিম মেম্বার ১২ সিরিজের আহসানুল হক পরশ বলেন, ‘নিজেদের স্টার্ট-আপ আর তাই হয়তো আবেগটা একটু বেশি। হ্যা, বাংলাদেশে এই প্রথম সম্পূর্ণ বানিজ্যিক ভাবে ওয়েটার রোবট তৈরি করছি আমরা!! এ আমাদের অহংকার নয়, গর্ব। মায়ের ভাষার প্রতি ভালোবাসা থেকেই রোবটটিকে দেয়া হয়েছে বাংলায় কথা বলার ক্ষমতা। বিশ্বে রোবোটিক্সের জগতে বাংলাদেশকে আরো এক ধাপ এগিয়ে নিলো PhotoSphere । আগামীতে এই ধারা অব্যাহত থাকবে ইনশাল্লাহ।”