১১ মেসির মুখোমুখি ১১ ম্যারাডোনা

0
1094

একসময় আর্জেন্টিনার ফুটবলের নতুন তারকা মানেই নামের পাশে একটি ট্যাগ লেগে যাওয়া; নতুন ম্যারাডোনা। লিওনেল মেসির গায়ে সেটা লাগবে বলে মনে হচ্ছিল। তবে মেসি এমন উচ্চতাতেই উঠেছেন, এখন আর ‘নতুন ম্যারাডোনা’ নয়, আর্জেন্টিনা ‘নতুন মেসি’ খুঁজে ফিরছে। এ দুজনের মধ্যে সেরার প্রশ্নে এখনই তর্কে নেমে পড়েন অনেকেই।

গোলের পর মেসির সঙ্গে উদ্‌যাপনে সঙ্গী হতে আসছেন মেসিরা। ছবি: ভিডিও থেকে সংগ্রহগোলের পর মেসির সঙ্গে উদ্‌যাপনে সঙ্গী হতে আসছেন মেসিরা। ছবি: ভিডিও থেকে সংগ্রহএক সমর্থক অত ঝামেলায় যাননি। ভিডিও গেমের সুবিধা নিয়ে মুখোমুখি দাঁড় করে দিয়েছেন মেসি-ম্যারাডোনাকে। এবং দুজনকেই যেন সতীর্থের সাফল্য কিংবা ব্যর্থতার ভাগ নিতে না হয়, সে ব্যবস্থাও করেছেন। দুটি দলই গড়া হয়েছে ম্যারাডোনা ও মেসিকে নিয়ে। অর্থাৎ এক দলের ১১ জনই মেসি। অন্য দলেও তা-ই, ১১ জন ম্যারাডোনা নেমেছেন মাঠে। ভিডিও গেমের জগতের বিপুল জনপ্রিয় প্রো এভুলুশন সকারের (পেস) সাহায্যেই ঘটানো হয়েছে এমন অবিশ্বাস্য ঘটনা। গোলে ম্যারাডোনা-মেসি, রক্ষণে ম্যারাডোনা-মেসি। মিডফিল্ডে ম্যারাডোনা-মেসি, আক্রমণেও ম্যারাডোনা-মেসি!

সমতা ফেরালেন ম্যারাডোনা। ছবি: ভিডিও থেকে সংগ্রহ

শুরু থেকেই জমে উঠেছে ম্যাচ। দারুণ বল প্লেয়িংয়ে শুরুতেই এগিয়ে যেতে পারত মেসি একাদশ। কিন্তু দুর্দান্ত এক স্লাইডিং ট্যাকলে গোল বঞ্চিত করেন ডিফেন্ডার ম্যারাডোনা। সে ট্যাকল দেখে জুভেন্টাসের বোনুচ্চি-কিয়েলিনিরাও ঈর্ষায় ভুগবেন। কিন্তু খুব বেশিক্ষণ আটকে রাখা যায়নি মেসিকে। খুব দ্রুতই ২ গোলে এগিয়ে যায় মেসিরা। অন্য প্রান্তেও মেসির রক্ষণ খুব বেশিক্ষণ শান্তিতে থাকেনি। প্রথমার্ধেই দুই গোল ফিরিয়ে দেন ম্যারাডোনা।

দলকে আবারও এগিয়ে দিলেন মেসি, আনন্দে আত্মহারা সতীর্থ মেসিরা। ছবি: ভিডিও থেকে সংগ্রহ
মেসি ও ম্যারাডোনায় সমতা টানতে দুই দলের তৃতীয় গোলটি এসেছে ‘সত্যিকারের’ মেসি-ম্যারাডোনাদের পা থেকে। মানে ১০ নম্বর জার্সিধারীদের পা থেকে আরও কি! তবে ম্যাচে ওই সমতা থাকেনি। বার্সার হয়ে গোলের সব রেকর্ড গড়া মেসির কাছে হার মেনেছেন গোল বানানোর কারিগর ম্যারাডোনা। কল্পিত এ ম্যাচ শেষ হয়েছে ৬-৩ ব্যবধানে।